View Details of Package

পিকনিক ডে-ট্যুর প্যাকেজ: ঢাকা টু নুহাশ পল্লী ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্ক (গাজীপুর)

নুহাশ পল্লী,

Package Type: Picnic

ডে-ট্যুর: ঢাকা টু নুহাশ পল্লী ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্ক (গাজীপুর)’এর অধীনে আমরা নিম্নে উল্লিখিত কয়েকটি ট্যুর প্ল্যানে প্যাকেজ ট্যুর পরিচালনা করে থাকি - 


১. পিকনিক ফুল প্যাকেজ (অনধিক ৩০০ জন)


*** দয়া করে বিস্তারিত না পড়ে বুকিং করবেন না।

শুধুমাত্র নুহাশ পল্লী রিসোর্ট (ভ্যাটসহ ৬৯০০০ টাকা) বুকিং করতে ক্লিক করুন এখানে → www.vromonbilash.com/package/শুধুমাত্র-নুহাশ-পল্লী-রিসোর্ট-বুকিং/view 


আপনার পরিবার-পরিজন-বন্ধুদের নিয়ে স্বতন্ত্রভাবে ভ্রমণবিলাসের জন্য আমাদের পিকনিক ফুল প্যাকেজ ট্যুরের আয়োজন। এছাড়াও রয়েছে পিকনিকের ফুল প্যাকেজ ব্যবস্থা (অনধিক ৩০০ জন)।



পিকনিক ফুল প্যাকেজ ট্যুর প্যাকেজ’এ সকালের নাস্তা সহ একজন ট্যুর গাইড গাড়ি নিয়ে সকাল ৬ টা ৩০ মিনিটে আপনার ঠিকানায় পৌঁছে যাবে । সকাল ৭ টায় গাড়ি নুহাশ পল্লীর উদ্দেশ্যে আমরা যাত্রা শুরু করবো এবং বিকেল ৫ঃ০০ মিনিটে নুহাশ পল্লী থেকে গন্তব্যের উদ্দেশ্যে রওনা হবো।


খাবার আয়োজনে যা থাকছে - 


সকালের নাস্তা

১টা স্যান্ডুইচ/ ১টা হটডগ/ ১টা কলা/ ১টা আপেল/ ১টা লাড্ডু/ ১টা লেক্সাস  বিস্কুট// ড্রাইকেক/ ১টা মিনারেল পানি (যেকোন ৫টি)

দুপুরের খাবার

মেন্যু অপশন - ১

  • প্লেইন পোলাও

  • মিক্সড সবজি

  • মুরগির রোষ্ট ১পিস/ চিকেন কারী

  • গরুর মাংস ভূনা (৪/৫পিস)

  • রুই / তেলাপিয়া / ফিশ কারি ১পিস

  • মুরগির গিলা কলিজা দিয়ে মুগ ডাল

  • সালাদ

  • কোমল পানীয়/ পায়েস / মিষ্টি / দই


অথবা মেন্যু অপশন - ২

  • সাদা ভাত

  • আলু ভর্তা, বেগুন ভর্তা, চেপা শুটকি ভর্তা, কাল জিরা ভর্তা,  পটল ভাজি, মিষ্টি কুমড়া ভর্তা,  বেগুন ভাজি, পেপে ভর্তা, কাচকি শুটকি ভুনা,  (যেকোনো ৪ পদ)

  • মুরগির ঝাল ফ্রাই / রোষ্ট ১পিস

  • গরু মাংস ভূনা ৪/৫পিস

  • রুই / তেলাপিয়া / ফিসকারি ১পিস

  • মুসরের ডাল

  • সালাদ

  • মিনারেল পানি ১টি

  • কোমল পানীয় ২৫০মিঃ/ পায়েস/ মিস্টি/ দই 

বিকালের নাস্তা

ভাপা পিঠা/ চিতই পিঠা/ সিঙ্গারা/ সমুচা/ ডাল পুরি/ কেক/ ফুচকা/ চটপটি/ ডাল ভাজা/ পিয়াজু/ চিপস/ আপেল/ পিয়ারা/ কলা/ গরুর দুধের চা (যেকোন ৩ টি)


* স্থান ও কাল ভেদে খাবারের মেনু পরিবর্তন হতে পারে।

* গরু মাংসের পরিবর্তে খাসির মাংস হলে জনপ্রতি ১০০ টাকা বাড়বে।

* পিকনিক গ্রুপ এর চাহিদা অনুযায়ী  খাবার মেন্যু কাস্টমাইজ করা যাবে।


আমাদের সারাদিনের কর্মসূচী ও যা যা দেখবো

  • সকাল ৬ঃ৩০ মিনিটে প্রারম্ভিক স্টেশন থেকে গাড়ি যাত্রা শুরু করবে

  • সকাল ৮ঃ০০ মিঃ হতে ৮ঃ৩০ মিঃ এর মধ্যেই গাড়িতে নাস্তা পরিবেশন

  • নাস্তা খেতে খেতে আমরা চলে যাবো বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্ক।


[বিঃদ্রঃ সাফারি পার্কের প্রবেশ ফি টা শুধু আমরা দিয়ে দিব ভিতরে ঢুকে যত রাইডে চড়বেন সেই সব খরচ আপনাদের।]


সাফারি পার্কে যা যা দেখবেন

  • পর্যবেক্ষণ টাওয়ারে উঠে বনাঞ্চলের নয়নাভিরাম সৌন্দর্য ও প্রাকৃতিক পরিবেশে বিচারণরত বিভিন্ন বন্যপ্রাণী যেমন বাঘ, সিংহ, হাতি, সাম্বার, মায়া হরিণ, চিত্রা হরিণ, বানর, হনুমান, ভল্লুক, গয়াল, কুমির ও বিচিত্র পাখির অবাধ বিচরণ। লেকের ধারে অথবা পাখিশালায় দেখতে পাবেন অসংখ্য অতিথি ও জলজ পাখি। এছাড়াও পার্কে দেখতে পারবেন বেস্টনীতে থাকা বিরল প্রজাতির প্যারা হরিণ।

  • তথ্য ও শিক্ষা কেন্দ্র, যেখানে ভিডিও প্রামাণ্য চিত্রের মাধ্যমে পার্ক টি সম্পর্কে পরিপূর্ন বিবরণ জানা যাবে।

  • ন্যাচারাল হিস্ট্রি মিউজিয়াম, যেখানে বন্যপ্রাণী ও উদ্ভিদ প্রজাতির বৈচিত্র্য সম্পর্কে পর্যটকগণ, বিশেষ করে ছাত্র-ছাত্রী ও গবেষকগণ বিস্তর ধারণা লাভ করতে পারবেন। এছাড়া সাফারি পার্ক এর বিশেষ আকর্ষণ হচ্ছে কোর সাফারী । যেখানে আপনারা থাকবেন গাড়ির ভিতর বন্দী; বাঘ, সিংহ, হরিণ, জিরাফ, গন্ডার, জেব্রা সহ সব হিংস্র প্রানীরা থাকবে উন্মুক্ত জঙ্গলে। গাড়ি ধীরগতিতে চলবে, দেখবেন তারা আপনাদেরকে গাড়ির কাছে এসে দেখবে। যা আপনার মনে সৃষ্টি করবে অদ্ভুত এক অনুভুতি।


  • সাফারি পার্ক ঘুরে দেখার পর – আপনারা চলে আসবেন আপনাদের কাঙ্ক্ষিত নুহাশ পল্লীতে। নুহাশ পল্লীতে এসে  ফ্রেশ হবেন মন চাইলে দিঘি লীনাবতী,সুইমিং পুলে সুইমিং করতে পারবেন।

  • তারপর-দুপুরের খাবার, আনুমানিক সময় ১ঃ৩০মিঃ- ৩ঃ০০মিঃ; মেন্যু অনুযায়ী নুহাশ পল্লীতে পরিবেশন করা হবে দুপুরের খাবার। খাবারের পর একটু বিশ্রাম নিবেন।

  • অতঃপর নুহাশ পল্লী ঘুরে দেখা। আমাদের  ট্যুর গাইড পুরো নুহাশ পল্লী আপনাদেরকে ঘুরে ঘুরে দেখাবেন; পরিচয় করাবেন নুহাশ পল্লীর  বৃক্ষদের সঙ্গে। দেখাবেন আপনাদের প্রিয় লেখক হুমায়ূন আহমেদ এর  স্মৃতিবিজরিত স্থান গুলো, কোথায় কোথায় তিনি কী করতেন, কোথায় কোথায় শুটিং হতো তাঁর জনপ্রিয় সেই সব নাটক সিনেমার। জানতে পারবেন নুহাশ পল্লীর নানা অজানা সব গল্প, যা জানলে আপনাদের ভিতর তৈরি হবে অন্যরকম ভালোলাগার এক অনুভূতি। জানতে পারবেন নানা সময়ের নুহাশ পল্লীতে ভুতেদের অত্যাচার ও সেই সব অত্যাচার থেকে বাঁচার জন্য কি সব করতেন প্রিয় লেখক হুমায়ূন আহমেদ। 

নুহাশ পল্লীতে যা যা দেখবেন

  • হুমায়ূন আহমেদ এর প্রিয় বাস ভবন হোয়াইট হাউজ

  • ঘেটু পুত্র কমলা ও নয় নাম্বার বিপদ সংকেত সিনেমার শুটিং ফ্লোর

  • লীলাবতী দিঘী

  • চন্দ্র কথা সিনেমার জমিদারী ঘাট

  • বিশেষ উদ্দেশ্যে লাগানো তাল গাছ

  • পবন ঝাউ গাছ

  • ভূত বিলাস

  • শ্বেত পাথরের শান বাঁধানো ঘাট ও পূর্ণিমা উৎসব

  • দিঘী লীলাবতী

  • মাটির তৈরি ঘর ও পানির কূয়া

  • শিশু পার্ক

  • রূপবতী মৎস্য কন্যা

  • মানুষের মাথার বিশাল কঙ্কাল

  • মা ও ছেলের ভাস্কর্য

  • প্রাগৈতিহাসিক যুগের প্রানী (ডাইনোসর)

  • কৃত্তিম পাহাড় ও চীন দেশের দৈত্য

  • বিশাল ব্যাঙের ছাতা

  • বৃষ্টি বিলাস

  • পদ্ম পুকুর

  • কল্পনার লীলাবতীর ভাস্কর্য

  • তেঁতুল বৃক্ষ ও ভূত বিলাস

  • হুমায়ূন আহমেদের সমাধি

  • লিচু বাগান

  • কাক দেশান্তরী আম বাগান

  • হুমায়ূন আহমেদ এর মুরাল

  • ট্রি হাউজ

  • সুইমিং পুল

  • বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় ঔষধি বৃক্ষের বাগান

  • ১০০ বছরে ১বার ফল হয়ে মারা যায় এমন তাল গাছ (তালি পাম)

  • মাটির প্রাচীর

  • পণ্ড আইল্যান্ড

  • খেলার মাঠ

  • মাটির ঘর

  • গন্ধব ফলের গাছ,


  • তারপর আপনারা নিজেদের  মত সময় কাটাবেন।

  • বিকালে আমরা আরেকটি নাস্তা দিব। বিকালের নাশতার আনুমানিক সময় ৪ঃ০০ মিঃ- ৪ঃ৩০ মিঃ; বিকালের নাস্তা করার পর আমরা আমাদের প্রিয় মানুষ যিনি সারা জীবন আমাদেরকে আনন্দ দিয়ে গেছেন, এখন চিরদিনের জন্য শুয়ে আছেন  নুহাশ পল্লীর সবুজের মাঝে,  সেই প্রিয় লেখক হুমায়ূন আহমেদ স্যারের কবর জিয়ারতের মাধ্যমে তাঁর আত্মার শান্তির জন্য  দোয়া করবো।

  • অবশেষে ফিরে আসা... আনুমানিক  ৫ঃ০০ মিঃ-৫ঃ৩০ মিঃ অর্থাৎ মাগরিবের আজানের আগে নুহাশ পল্লী থেকে আমরা ঢাকার উদ্দেশে রওনা হব। আপনারা যে যেখান থেকে উঠেছিলেন ঠিক সেখানেই (অথবা উক্ত রুটের যেকোনো বোর্ডিং পয়েন্টে) নামিয়ে দিয়ে হবে আমাদের ডে- ট্যুর এর সমাপ্তি।



এক নজরে প্যাকেজের খুটিনাটি


পিকনিক ফুল প্যাকেজ (অনধিক ৩০০ জন)

  • সদস্যের একক - ৩০০ জন ফুল প্যাকেজ

  • ভ্রমণ সদস্য সীমা - ৩০০ জন

  • পরিবহন - এসি বাস

  • গাড়িতে ওঠার স্থান - ঢাকা মেট্রো এর অধীনস্ত এলাকায় আপনার পূর্বনির্ধারিত যেকোনো স্থান

  • সাফারি পার্কের এন্ট্রি ফী - ভ্রমণবিলাস বহন করবে

  • সাফারি পার্কের অন্যান্য বিনোদন প্রোগ্রামের ফী - উক্ত ব্যয়ভার ব্যক্তিকেই প্রদান করতে হবে

  • নুহাশ পল্লীর সকল ফী - ভ্রমণবিলাস বহন করবে

  • খাবার - সকালের উল্লিখিত নাস্তা, দুপুরের উল্লিখিত অপশন হতে যেকোনো ১ সেট মেন্যু, ও বিকালের নাস্তা

  • ০১ টি ভিআইপি রুম এবং ০৩ টি নরমাল রুম (এটাচ বাথরুম সহ), বাইরে পুরুষ ও মহিলাদের জন্য আলাদা পর্যাপ্ত ওয়াশরুম, সুইমিংপুল, খেলার মাঠ, স্টেইজ, প্যান্ডেল, ১ পেয়ার সাউন্ড সিস্টেম সহ পুরো নুহাশ পল্লী ঐ দিন পিকনিক ফুল প্যাকেজ গ্রুপের জন্যই বরাদ্দ থাকবে

  • ট্যুর গাইড

  • যাত্রা শুরুর সময় - সকাল ৬ঃ৩০ মিঃ/ ৭ঃ০০ মিঃ

  • নুহাশ পল্লী হতে ফেরার সময় - বিকাল ৫ঃ০০ মিঃ/সন্ধ্যার আগে



আমাদের প্যাকেজ ট্যুর এর বিশেষ সুবিধা সমূহ -

১. ভ্রমণবিলাস, নুহাশ পল্লীর অনুমোদিত অফিসিয়াল বুকিং এজেন্ট এবং একটি বিশ্বস্ত ভ্রমণ প্যাকেজ আয়োজক ও রিসোর্ট  বুকিং প্ল্যাটফর্ম।


২. সকালের নাস্তা, দুপুরের খাবার, বিকালের নাস্তা, সাফারী পার্ক এর শুধু মূল গেইটের এন্ট্রি ফি,  নুহাশ পল্লীর রেন্ট, সুইমিং, পর্যাপ্ত বিশ্রাম এর ব্যবস্থা, এসি গাড়িতে  যাওয়া-আসা, কোন ঝামেলা ছাড়াই আপনি/আপনারা ঢাকার খুব কাছেই দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় দুটি জায়গা এক দিনে  উপভোগ করতে পারবেন । 

আপনার কাজ শুধু ঘরে বসে অনলাইনে বুকিং/ফোন করা, আমাদের কাজ আপনাকে নিরাপদে একটি একটি সুন্দর ডে-ট্যুর উপহার দেয়া।


৩. আপনি  একা বা আপনার সঙ্গি কে নিয়ে এই দুটি জায়গার ঘুরতে  গেলে যে খরচ হবে তারচেয়ে অর্ধেক খরচে ঝামেলা মুক্ত ভাবে আমরা দিচ্ছি একটি সুন্দর প্যাকেজ  ও সর্বোত্তম সেবা।


৪. আপনাদের সার্বিক সহযোগিতা করার জন্য থাকবে সার্বক্ষণিক একজন ট্যুর  গাইড।


৫. ফ্রেশ ও সুস্বাদু খাবার যা রান্না করবেন নুহাশ পল্লীর নিজস্ব বাবুর্চি।


৬. রেগুলার ট্যুর প্যাকেজ (জনপ্রতি হিসেবে)’এর ভ্রমণ সদস্যরা ৩ টি কমন রেস্ট রুম ব্যবহার করতে পারবেন। প্রতিটি রুমে সংযুক্ত বাথরুম রয়েছে; এছাড়াও রুমের বাইরে পুরুষ- মহিলাদের আলাদা আলাদা পর্যাপ্ত ওয়াশ রুমের ব্যবস্থা রয়েছে।


৭. ভ্রমনের আগের দিন রাতের মধ্যে আপনাদেরকে গাড়ির নাম্বার, ট্যুর গাইডের নাম ও মোবাইল নম্বর এসএমএস’এর মাধ্যমে জানিয়ে দেয়া হবে।


৮. ফ্রেন্ডস এন্ড ফেমিলি ট্যুর এবং কর্পোরেট প্যাকেজ ট্যুর প্ল্যানের জন্য একটি অতিরিক্ত ভি, আই, পি প্রেস রুম দেয়া হবে।


৯. শুধুমাত্র পিকনিক ফুল প্যাকেজ (অনধিক ৩০০ জন) এর ক্ষেত্রে একটি ভিআইপি প্রেস রুম এবং ৩ টি নরমাল রুম, সুইমিংপুল, খেলার মাঠ, স্টেইজ, প্যান্ডেল, ১ পেয়ার সাউন্ড সিস্টেম সহ পুরো নুহাশ পল্লী ঐ দিন পিকনিক ফুল প্যাকেজ গ্রুপের জন্যই বরাদ্দ থাকবে।


*** আপনার বুকিং করা রিসোর্ট/ট্যুর প্যাকেজ পরবর্তীতে ট্র্যাকিং ও যেকোনো ইস্যু সংক্রান্ত ব্যাপারে সেবা সহজীকরণের জন্য শুরুতেই লগইন করে নেয়ার জন্য সুপারিশ করা হচ্ছে। যদি নতুন ইউজার হয়ে থাকেন তবে একাউন্ট তৈরি/সাইন-আপ এর পরামর্শ করছি।


প্যাকেজ ট্যুর বুকিং এর নিয়ম-কানুন

১. ট্যুর বুকিং করার পূর্বে আমাদের ওয়েবসাইট www.vromonbilash.com/package/list  এর ট্যুর প্যাকেজ এর অধীনে আপনার ট্যুর প্যাকেজটির বিস্তারিত ভালো করে পড়ুন। 

২. আপনার নির্বাচিত ট্যুর প্যাকেজের জন্য ভ্রমণবিলাস এর নির্দিষ্ট/এভেইলএবল তারিখ হতে প্রথমে আপনার পছন্দের তারিখ সিলেক্ট করে বুকিং ফর্মে আপনার নাম, মোবাইল নম্বর, ইমেইল এড্রেস, ঠিকানা প্রদান করুন। এক্ষেত্রে আপনি যদি ইতোমধ্যেই ভ্রমণবিলাস এর রেজিস্টার্ড/সাইন-আপ করে থাকেন, তবে লগইন করে ফরমের বাকি অংশ পূরণ করুন।


৩. ফরমের বাকি অংশে আপনি প্যাকেজের অধীনে কোন প্যাকেজ প্ল্যান টি বুকিং করতে চান তা সিলেক্ট করুন। অতঃপর আপনারা মোট কতজন সদস্য (Member) যেতে চান সেই সংখ্যা লিখুন। 


*** উল্লেখ্য, ফ্রেন্ডস এন্ড ফ্যামিলি (অনধিক ১০) জন এর প্যাকেজ প্ল্যান সিলেক্ট করে ভ্রমণ সদস্য (Member) ২০ জন লিখলে তা ১০ আসনের ০২ (দুই) টি গাড়িসহ প্যাকেজের অর্ডার বলে বিবেচিত হবে। 


৪. রেগুলার গ্রুপ ট্যুর (জনপ্রতি হিসেবে) প্যাকেজ প্ল্যান সিলেক্ট করলে আপনি কত নম্বর/কোন রুটের গাড়িতে যেতে চান তা সিলেক্ট করে আপনার বোর্ডিং/পিক-আপ পয়েন্ট সিলেক্ট করুন। রেগুলার গ্রুপ ট্যুর (জনপ্রতি হিসেবে) ব্যতীত অন্যান্য প্যাকেজ প্ল্যানের ক্ষেত্রে আপনার বোর্ডিং/পিক-আপ এড্রেস টি লিখুন।


৫. সঠিকভাবে সকল তথ্য পূরণের পর ‘Book Now’ বাটনে ক্লিক করে বুকিং রিকোয়েস্ট ফর্ম সাবমিট করুন। বুকিং রিকোয়েস্ট সাবমিটের পর আপনি একটি ইনভয়েস পাবেন, এবং একইসাথে ইমেইল ও ফোনে ইনভয়েস নম্বর সম্বলিত নোটিফিকেশন মেসেজ পাবেন। উক্ত ইনভয়েস নম্বর দিয়ে আপনি পরবর্তীতে বুকিং ট্র্যাক করতে পারবেন।


৬. আপনার বুকিং রিকোয়েস্ট সাবমিশনের পর ভ্রমণবিলাসের একজন প্রতিনিধি আপনার সাথে ফোনে সরাসরি যোগাযোগ করে বুকিং রিকোয়েস্ট এক্সেপ্ট করবেন, এবং অতঃপর প্যাকেজ প্ল্যান অনুসারে পেমেন্ট নির্দেশাবলী (ইন্সট্রাকশন) অনুযায়ী পেমেন্ট কনফার্ম করুন।


৭. প্যাকেজ বুকিং এর জন্য বুকিং রিকোয়েস্ট এক্সেপ্ট করার পর অনলাইন পেমেন্টের মাধ্যমে পরবর্তী ৩০ মিনিটের মধ্যে বিল অগ্রিম পরিশোধ করার মাধ্যমে বুকিং কনফার্ম করতে হবে। অন্যথায় বুকিং রিকোয়েস্ট টি বাতিল (ক্যান্সেল) হয়ে যাবে। উল্লেখ্য যে, রেগুলার গ্রুপ ট্যুর (জনপ্রতি হিসেবে) প্যাকেজ প্ল্যানের ক্ষেত্রে সম্পূর্ণ অর্থ পরিশোধ করতে হবে; রেগুলার গ্রুপ ট্যুর (জনপ্রতি হিসেবে) ব্যতীত অন্যান্য প্যাকেজ প্ল্যান বুকিং এর ক্ষেত্রে আংশিক পেমেন্ট গ্রহণযোগ্য হলেও সম্পূর্ণ অর্থ যাত্রার ০২ (দুই) দিন পূর্বে অবশ্যই পরিশোধ করে কনফার্ম করতে হবে। অন্যথায় বুকিং টি বাতিল (ক্যান্সেল) হয়ে যাবে।


অথবা সরাসরি আমাদের অফিসে এসে এবং আমাদের ফোন নাম্বারে কল করেও আপনি ট্যুর প্যাকেজ বুকিং করতে পারবেন। সেক্ষেত্রে অবশ্যই ভ্রমণের  কমপক্ষে ০২ (দুই) দিন আগে সম্পূর্ণ পেমেন্ট করে ট্যুর বুকিং কনফার্ম করতে হবে।