বড় আহ্নিক মন্দির

বড় আহ্নিক মন্দির

Rajshahi Rajshahi

0 Reviews

Overview

 বড় আহ্নিক মন্দির পুঠিয়া মন্দির চত্বরের সর্ব দক্ষিণে অবস্থিত মন্দির। এটি রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলায় অবস্থিত। পুঠিয়ার রাজারা এটি নির্মাণ করেন ।রাজশাহী জেলা সদর হতে ৩২ কিঃ মিঃ উত্তর-পূর্ব দিকে ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়কের পাশেই এর অবস্থান।পুর্বমুখী এই মন্দিরে পাশাপাশি তিনটি কক্ষ আছে। মাঝের কক্ষটি তুলনামুলকভাবে বড় এবং পাশের কক্ষ দুইটি বর্গাকৃতির ও সম আয়তনের। এই কক্ষ দুইটিতে একটি করে সরু প্রবেশ পথ আছে। মন্দিরের পুর্ব দিকে তিনটি খিলান দরজা এবং উপরে দৌচালা আকৃতির ছাদ আছে। আয়তাকার এ মন্দিরের উত্তর, দক্ষিণ ও পশ্চিম পাশের দেয়াল সমতল এবং সেখানে কোন অলংকরণ নেই। তবে সাম্নের দিকের দেয়াল পোড়ামাটির চিত্রফলক দ্বারা সজ্জিত

Instruction

কিভাবে যাবেন ঃরাজধানী ঢাকা শহর থেকে সড়ক, রেল এবং আকাশ পথে রাজশাহী যাওয়ার ব্যবস্থা রয়েছে। শ্যমলি, হানিফ, ন্যাশনাল ট্রাভেলস, বাবলু এন্টারপ্রাইজ প্রভৃতি নন-এসি বাস ৪০০ থেকে ৫০০ টাকা ভাড়ায় চলাচল করে। ঢাকার কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশান থেকে রবিবার ব্যতীত সপ্তাহের ৬ দিন দুপুর ২ টা ৪০ মিনিটে সিল্কসিটি এক্সপ্রেস ট্রেন রাজশাহীর উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। এছাড়া পদ্মা এক্সপ্রেস ট্রেন মঙ্গলবার ছাড়া প্রতিদিন রাত ১১ টা ১০ মিনিটে রাজশাহীর জন্য ঢাকা ত্যাগ করে।  রাজশাহী এবং নাটোর থেকে সড়ক পথে পুঠিয়া রাজবাড়ীর দূরত্ব যথাক্রমে ৩৪ ও ১৮ কিলোমিটার। রাজশাহীগামী যেকোনো বাসে চড়ে রাজশাহী-নাটোর মহাসড়কে পুঠিয়া বাসস্ট্যান্ড নেমে ৫ থেকে ১০ মিনিট পায়ে হেটে রাজবাড়ি যাওয়া যায়। রাজশাহী কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল থেকে নাটোরগামী বাসে করে এবং সরাসরি পুঠিয়া যাবার লোকাল বাসে করেও পুঠিয়া যাওয়ার সুযোগ রয়েছে।


কোথায় থাকবেন ঃ  পুঠিয়াতে রাত্রি যাপনের জন্য জেলা পরিষদের ২ টি ডাকবাংলো রয়েছে। জেলা পরিষদের অনুমতি এবং নির্ধারিত ভাড়া পরিশোধ করে বাংলোগুলিতে রাতে থাকা যায়। জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার ফোন নাম্বার: 0721-776348। এছাড়া পুঠিয়া বাসস্ট্যান্ডের কাছে আবাসিক হোটেলে রাত্রি যাপনের সুযোগ আছে। এছাড়া রাজশাহীতে ফিরে এসে রাজশাহীর বিভিন্ন মানের হোটেল থেকে আপনার জন্য উপযোগী হোটেলে রাত্রি যাপন করতে পারেন।