মোজাফফর গার্ডেন এন্ড রিসোর্ট

মোজাফফর গার্ডেন এন্ড রিসোর্ট

Khulna Satkhira

0 Reviews

Overview

মোজাফফর গার্ডেন এন্ড রিসোর্ট (Mozaffer Garden & Resort) সাতক্ষীরায় মন্টু মিয়ার বাগান বাড়ি নামে বহুল পরিচিত। সাতক্ষীরা জেলায় ১২০ বিঘা জায়গা জুড়ে ১৯৮৯ সালে জনাব কে, এম, খায়রুল মোজাফফর (মন্টু) এই মোজাফফর গার্ডেন এন্ড রিসোর্ট স্থাপন করেন। সবুজে পরিপূর্ণ এবং খোলামেলা প্রাকৃতিক পরিবেশ সহজেই এখানে আগত অতিথিদের নজর কাড়ে। মোজাফফর গার্ডেন এন্ড রিসোর্টে থাকার জন্য ৪ টি ভবনে মোট ৩০ টি কক্ষ রয়েছে। কারুকাজপূর্ণ এসব কক্ষগুলোতে রয়েছে আধুনিক জীবন যাপনের সমস্ত নাগরিক সুবিধা।


১। আবাসন সুবিধা: আধুনিক সরঞ্জাম সজ্জিত Guest House আছে একাধিক । সেখানে আপাতত: ১৬টি AC/Non AC রুম আছে । আরও একাধিক রুম নির্মাণাধীন আছে ।


২। রেষ্টুরেন্ট ও মিটিং/কনফারেন্স এর ভবন : গার্ডেটের অভ্যন্তরে মনোরম ৩ তলা ভবন তৈরী করা হয়েছে যার নীচ তলায় Restaurant ও ১ম ও ২য় তলায় আনুমানিক ২৪০ জনের মিটিং/সম্মেলন অনুষ্ঠানের ব্যবস্থা আছে ।

৩। Guest House এ অবস্থানরত অতিথিদের জন্য Dining Hall আছে যেখানে সুন্দর ও পরিচ্ছন্ন ঘরোয়া পরিবেশে প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব Waiter দ্বারা সুস্বাদু বিভিন্ন খাদ্য খাবার পরিবেশন করা হয় অত্যন্ত ন্যায্য মূল্যে। আমাদের নিজস্ব কিচেনে নিজেদের বাবুর্চিবৃন্দ বাংলাদেশী/ চাইনিজ খাদ্য সামগ্রী রান্না করে থাকে । বাহিরের সম্মানিত পার্টির খাদ্য সরবরাহের অর্ডারও নেওয়া ও আমাদের ডাইনিং হলে পরিবেশন করা হয়।

৪। শীত মৌসুমে গার্ডেনের অভ্যন্তরে পিকনিকের সুব্যবস্থা রাখা হয়েছে যেখানে দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে ভ্রমণ পিপাসু লোকজন আসে এবং আনন্দের সাথে পিকনিক বা বনভোজন করে থাকে । পিকনিকের জন্য সর্বমোট ১০৫টি স্পট রাখা হয়েছে । পিকনিকের জন্য আগত নারী পুরুষের Fresh Up/Changing জন্য পৃথক রুম নির্মানাধীন আছে

৫। এখানে শিশুদের চিত্ত বিনোদনের জন্য পৃথক পার্ক আছে । বিস্তৃত লেকের মধ্যে প্যাডেল বোট এ চড়ে নৌ ভ্রমণের চমকপ্রদ আয়োজন আছে । শিশু পার্কটি বিভিন্ন খেলনা সামগ্রী দ্বারা সজ্জিত । এছাড়াও পৃথক Spot এ শিশুদের জন্য খেলনা গাড়ির ব্যবস্থা আছে যা তাদের জন্য অত্যন্ত মজার এবং উপভোগ্য বিষয় ।

৬। এর অভ্যন্তরে বৃহদাকারের পুকুর/লেক আছে ৮টি, এর ১টি  Natural Swimming Pool হিসেবে প্রস্তু করা হয়েছে । যেখানে কক্ষের অতিথিরা স্বাচ্ছন্দে সাঁতার  কেটে  সময়টাকে উপভোগ করতে পারেন । এই সব জলাশয়ে প্রচুর ম....স্য চাষ করা হয় । এছাড়াও মাছ কর্তৃক Feeder খাওয়ার  চমকপ্রদ ও দর্শনীয় একটা বিষয় আছে যা ভ্রমণ পিপাসু ব্যক্তিরা আগ্রহের সাথে উপভোগ করে থাকেন ।

৭। সুইমিং পুল ধরণের ২টা Fish Aquarium আছে । যাতে রং বেরং এর মাছ শোভা পাচ্ছে ।

৮। অত্র পর্যটন কেন্দ্রের অভ্যন্তরে দেশী-বিদেশী বিভিন্ন প্রজাতির পশু পাখির সমন্বয়ে ১টি Mini Zoo আছে।

৯। বাগানে সুস্বাদু আমের গাছ আছে মোট ৬২৫টি, নারিকেল গাছ আছে ৭২০টি, মেহগনী গাছ আছে মোট ৭২৮টি। এছাড়াও লিচু, আপেল, কমলা, পামট্রি ও কুল গাছ রোপন করা হয়েছে ।

১০।  মোজাফফর গার্ডেন ও রিসোর্টটি বিভিন্ন প্রজাতির ফুল ও গাছ দিয়ে সুন্দর ও মনরমভাবে সুসজ্জিত ।

১১। দর্শনার্থীদের সুবিধার্থে প্রয়োজনীয় সংখ্যক বাথরুম, সুপেয় পানীয় জল ও সুন্দর টাইলস দিয়ে বসার জন্য পাকা বেঞ্চ তৈরী করা আছে ।

১২।  বাগানের বিভিন্ন স্থান বিভিন্ন পশু পাখির ভাষ্কর্য ও আধুনিক বৈদ্যুতিক বাতি দ্বারা সুসজ্জিত ।

১৩।ধর্মপ্রাণ মুসলিম নর-নারীদের নামাজ আদায়ের সুবিধার্থে ২টি সুন্দর পাঞ্জেগানা মসজিদ নির্মাণ করা হয়েছে।

১৪।  বেড়াতে আসা লোকজনের নিরাপত্তা নিশ্চিতকল্পে প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব নিরাপত্তা কর্মী সদা কর্মরত আছে । বিশেষ করে প্রয়োজনে পুলিশের সহযোগিতা গ্রহণ করা হয় ।


রিসোর্টটির অভ্যন্তরে দেশী-বিদেশী বিভিন্ন প্রজাতির বৃক্ষ, ফুল-ফল ও পশু-পাখির সমারোহ রয়েছে। বাগানের চারিদিকে অত্যন্ত দর্শনীয়ভাবে লাগানো হয়েছে আম, নারিকেল ও মেহগনি গাছ। এছাড়াও সমগ্র উদ্যান জুড়ে লাগানো হয়েছে লিচু, আপেল, কমলা, ছবেদা, পেয়ারা, পাম গাছ, কুল সহ বিভিন্ন প্রকারের কয়েক হাজার গাছ। রিসোর্টটি বিভিন্ন জাতের হাজারো ফুল গাছ দিয়ে মনোরমভাবে সুসজ্জিত করা হয়েছে । উদ্যানের অভ্যন্তরে রয়েছে বৃহদাকার ০৮টি হ্রদ, একটি প্রাকৃতিক সাঁতার কাটার পুল ও দুটি বৃহদাকার মাছের এ্যাকুরিয়াম। এ্যাকুরিয়াম সমূহে নানান রঙের বিভিন্ন বিদেশী মাছ শোভা পাচ্ছে। হ্রদ সমূহে মাছ চাষ করা হয়। দর্শনার্থীদের জন্য চমকপ্রদ একটি বিষয় হচ্ছে হ্রদে বড় বড় মাছ কর্তক ফিডার খাওয়া। পায়ে হাটার জন্য সুন্দর ঢালাই করা সাজানো-গোছানো পথ ও বসার জন্য সমগ্র গার্ডেন জুড়ে তৈরি করা হয়েছে টাইলস বাধানো বেঞ্চ। রাতে চলার জন্য সমগ্র গার্ডেন জুড়ে বিভিন্ন নকশা ও রঙের বৈদ্যূতিক বাতি বসানো হয়েছে। যা রাতে গার্ডেনের চেহারাকে পরিবর্তন করে এক অন্য জগতের সৃষ্টি করে। এখানে যে সকল দর্শনার্থীরা আসেন তারা দিন ও রাতের উভয় সৌন্দর্যই উপভোগ করার জন্য চেষ্টা করেন। সমগ্র মোজাফফর গার্ডেন ও রিসোর্ট জুড়ে তৈরি করা হয়েছে হাতি, বাঘ, হরিন, জিরাফ, কুমির, পাখি, সাপ সহ নানা প্রাণীর ভাষ্কর্য।


রিসোর্টে রয়েছে একটি ছোট চিড়িয়াখানা। যা ইতিমধ্যে দর্শনার্থী ও প্রাণী পিপাষূ মানুষদের কাছে ব্যাপক জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। এই মিনি চিড়িয়াখানায় হরিন, কুমির, সজারু, ময়ূর সহ বিভিন্ন প্রকারের পশু ও পাখি আছে।

Instruction

যাওয়ার উপায় ঃ ঢাকা থেকে সাতক্ষীরার দূরত্ব ৩৪৩ কিলোমিটার। ঢাকার গাবতলী, নবীনগর, শ্যামলী, কল্যাণপুর এবং সাভার থেকে সাতক্ষীরা যাবার এসি এবং ননএসি বাস রয়েছে। এদের মধ্যে এসপি গোল্ডেন লাইন, এ কে ট্রাভেলস (02-8032916), হানিফ এন্টারপ্রাইজ (02-8011759), গ্রীন লাইন, মামুন এন্টারপ্রাইজ, ঈগল পরিবহন (02-8017698, 02-8017320), সোহাগ পরিবহন, সৌদিয়া পরিবহন, সাতক্ষীরা এক্সপ্রেস এবং শ্যামলী পরিবহন ।

মোজাফফর গার্ডেন এন্ড রিসোর্ট বা মন্টু মিয়ার বাগান বাড়ি সাতক্ষীরা জেলা সদর থেকে মাত্র ৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত।